Monday, March 11, 2019

[PC] পোর্টেবল ড্রাইভ কেনার পূর্বে জেনে নিন।


বিসমিল্লাহির রহমানির রহিম”
“আসসালামু আলাইকুম”
Hello! Friends, আমার আজকের পোষ্টে আপনাদের সকলকে স্বাগতম জানাচ্ছি,,,,

তোমরা সকলে কেমন আছো? আশা করি ভালো আছো সবাই ভালো আছো আমি আলহামদুলিল্লা ভালো আছি

আজকের টপিক,
[PC] পোর্টেবল ড্রাইভ কেনার পূর্বে জেনে নিন ।
Image result for [PC] পোর্টেবল ড্রাইভ

প্রিয় ভাইয়েরা আমরা কম্পিউটার,মোবাইলের যুগে সবাই কম বেশি তথ্য আদান প্রদান থেকে তথ্য সংগ্রহ সহ নানা কাজের অন্য আমরা পোর্টেবল ড্রাইভ ব্যবহার করে থাকি আমাদেরপোর্টেবল ড্রাইভ কেনার আগে কয়েকটি বিষয় মাথায় রাখা উচিত


পোর্টেবল  ড্রাইভ কেনা আগে  করণীয় সমূহ:-

১. সঠিক ‘কানেকশন’ বেছে নেওয়াঃ

ইউএসবি ছাড়া অন্য কিছু চিন্তা করতে পারেন। থান্ডারবোল্ট এমন কানেকশন যা প্রচলিত নয়। তবে সবার এমন স্টোরেজ দরকার যা তার কম্পিউটারে সুন্দরভাবে কাজ করে। থান্ডারবোল্ট বা থান্ডারবোল্ট ২ পোর্ট থাকলে (ম্যাকে থাকে সাধারণত) এটাই ভালো হবে। অন্যদিকে, অধিকাংশ কম্পিউটারে ইউএসবি পোর্ট থাকে। তাই তাদের জন্য এটাই উপযোগী।

২. ভবিষ্যতের প্রস্তুতিঃ

আপনার ইউএসবি কানেশন যেন ভবিষ্যতেও চলে তা নিশ্চিত করতে হলে হয়তো বর্তমান কম্পিউটারে চলবে না। আজ থেকে এক বা তিন বছর পর যদি কম্পিউটার কেনার চিন্তা থাকে তবে ইউএসবি-সি পোর্ট বেছে নিতে হবে। আবার যদি ইউএসবি-এ পোর্ট থাকে তবে ইউএসবি-সি ড্রাইভ সংযোগের জন্যে ইউএসবি-সি-টু-ইউএসবি-এ ক্যাবল লাগবে।

৩. দ্রুতগতির হতে হবেঃ

পোর্টেবল ড্রাইভটিকে দ্রুতগতির পেতে চাইলে এসএসডি স্টোরেজ লাগবে। বড় ধরনের ফাইল বা এইচডি মুভি চালাতে চাইলে এসএসডি দরকার। তবে এই স্টোরেজ বেশ দামী। আবার যদি প্রতিনিয়ত কিছু না কিছু আপনাকে স্টোরেজ করতে হয়, তবে গতি ততটা গুরুত্বপূর্ণ নয়।

তবে মনে রাখবেন, থান্ডারবোল্ট প্রচলিত ইউএসবি’র চেয়ে বেশি গতির হয়ে থাকে।

৪. যথেষ্ট স্টোরেজ আছে তো?

যত বেশি স্টোরেজ তত ভালো। তবে এ ক্ষেত্রে দামের বিষয় রয়েছে। কত স্টোরেজ নেবেন তা নির্ভর করে আপনার চাহিদার ওপর। একটা ৪ টেরাবাইট স্টোরেজ নিতে পারেন। বড় ধরনের ফাইল রাখতে চিন্তা করতে হবে না।

৫. কতটা টেকসই?

হয়তো আপনি খুব সাবধানী নন। এলোমেলো এবং অযত্নে ব্যবহার করেন। সে ক্ষেত্রে ‘রাগড’ পোর্টেবল ড্রাইভ পাওয়া যায়। এগুলো পড়ে গেলে ক্ষতিগ্রস্ত হয় না। আবার পানি পড়লেও নষ্ট হয় না।

এবার এখানে কিছু ভালোমানের পোর্টেবল ড্রাইভের পরিচয় জেনে নিন:-

১. স্যামসাং পোর্টেবল এসএসডি টি৩ঃ
দারুণ পাতলা এবং ২ টেরাবাইট স্টোরেজ থাকে। অ্যালুমিনিয়াম দেহে টেকসই। নিরাপত্তাব্যবস্থা রয়েছে। আরো আছে ইউএসবি-সি পোর্ট। তবে এতে ইউএসবি-সি-টু-ইউএসবি-সি ক্যাবল দেওয়া হয় না এর সঙ্গে। এটা বেশ দামী।
২. স্ক্যানডিস্ক এক্সট্রিম ৯০০ পোর্টেবল এসএসডিঃ
দারুণ গতির ড্রাইভ। ইউএসবি-সি পোর্ট রয়েছে। দুটো ইউএসবি ক্যাবল দেওয়া আছে। বেশ টেকসই। নিরাপত্তাব্যবস্থা দেওয়া রয়েছে। এর দামম বেশি এবং আকারে বেশ বড়।
৩. লাসি রাগড থান্ডারবোল্ট অল-টেরাইনঃ
রাগড ক্যাটাগরির। ইউএসবি ৩.০ এবং থান্ডারবোল্ট উভয়ই সাপোর্ট করে। তবে ইউএসবি-সি পোর্ট নেই এবং বেশ দামী।
৪. ডাব্লিউডি মাই পাসপোর্ট আল্ট্রাঃ
সর্বোচ্চ ৩ টেরাবাইট স্টোরেজ দিতে পারে। বেশ দ্রুতগতির। ব্যাকআপ সফটওয়্যার রয়েছে। রিয়েল-টাইম ব্যাকআপ অপশন নেই। এসএসডি ড্রাইভ হিসাবে পারফরমেন্স অনেকের কাছে পছন্দসই নয়।
৫. জি-টেক জি-ড্রাইভ মোবাইল ইউএসবি-সিঃ
পারফরমেন্স ভালো। অ্যালুমিনিয়াম কেসে বেশ টেকসই। সমস্যা হলো, সর্বোচ্চ ক্যাপাসিটি ১ টেরাবাইট। দামও তুলনামূলক বেশি।

**পোষ্ট টি ভালো লাগলে অবশ্যই  কমেন্ট করে জানাতে ভুলবেন না
**আজকের মতো বিদায় নিচ্ছি ভালো থাকবেন নিয়মিত পাঁচ ওয়াক্ত সালাত আদায় করবেন  
,,,,আল্লাহ্ হাফেজ,,,,,

Previous Post
Next Post

0 Comments: