Sunday, February 10, 2019

ফেসবুক মেসেজের ‘সিন’ অপশন থেকে মুক্ত করুন নিজেকে

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে প্রতিদিন কোটি কোটি ক্ষুদ্র বার্তা বিনিময় হয়। দেখা গেছে এই সব ধারাবাহিক বার্তা বিনিময়ের শুরু কিংবা শেষ বলে কিছু নেই। বরং দিনের পর দিন, মাসের পর মাস এমনকি বছরের পর বছর ধরে খণ্ড খণ্ডভাবে চলতে থাকে অনির্দিষ্টকাল থেকে শুরু হওয়া কথোপকথনগুলো।
এতে যারা নিয়মিত ফেসবুক ব্যাবহার করেন তাদের মধ্যে অনেকেই নিজেদের অজান্তে একটি স্নায়বিক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ার স্বীকার হচ্ছেন। কেননা যখনি কোনও বার্তা ফেসবুকের ইনবক্সে ‘সিন’ দেখানো হয়, আমাদের মধ্যে অনেকেই, অপর পক্ষ হতে সঙ্গে সঙ্গে পঠিত বার্তার উত্তর আশা করেন। কিন্তু অধিকাংশ সময়ে আশাহত হওয়ার ফলে ব্যবহারকারীর অবচেতন মনে একটি ধারাবাহিক ক্ষতিকর প্রভাবের সৃষ্টি হয়।
তাই আপনি যদি কোন উটকো ঝামেলা এড়িয়ে যেতে চান অথবা ব্যস্ততার কারণে আপনার প্রিয়জনকে সঙ্গে সঙ্গেই উত্তর দিতে না পারেন এবং সকল ধরনের ভুল বোঝাবুঝি থেকে মুক্ত থাকতে চান; তবে খুব সহজেই নিম্নোক্ত উপায়ের যে কোনও একটির মাধ্যমে ফেসবুকের ‘সিন’ অপশন থেকে মুক্তি লাভ করতে পারবেন।


facebook2
গুগল ক্রোম ব্যবহারকারীদের জন্য
যারা ডেস্কটপ অথবা ল্যাপটপে গুগল ক্রোম ব্রাউজার ব্যবহার করেন, তারা ‘ফেসবুক আনসিন’ নামক এক্সটেনশানটি ডাউনলোড করে নিন এই লিঙ্ক থেকে http://goo.gl/4ogbzg
অন্যান্য ব্রাউজারের জন্য
গুগল ক্রোম ব্যতীত অন্য ব্রাউজার ব্যবহারকারীগণ ডাউনলোড করে নিন ‘এডব্লক প্লাস’ নামক এক্সটেনশানটি এই লিঙ্ক থেকে https://adblockplus.org/en/ । ইন্সটল করা হয়ে গেলে এক্সটেনশানের কাস্টম ফিল্টারে অ্যাড করে দিন নিন্মোক্ত  ইউআরএল
‘facebook.com/ajax/mercury/change_read_status.php$xmlhttprequest’
মোবাইলের জন্য যা করতে হবে
অ্যানড্রয়েড ও আইফোন ব্যবহারকারীরা প্লে স্টোর অথবা আইটিউনস থেকে ডাউনলোড করে নিন ‘আনরিড’ নামক এই অ্যাপ্লিকেশন। তবে অ্যাপ্লিকেশনটি ব্যবহারের একমাত্র সীমাবদ্ধতা হল ফেসবুকে আসা বার্তার উত্তর দিতে চাইলে আপনাকে নিয়মিত ম্যসেঞ্জারের মাধ্যমেই সেটা করতে হবে। এটার মাধ্যমে কোনও বার্তা শুধু পড়া কিন্তু পাঠানো যায় না।
এই হল আপাত সমাধান যতদিন পর্যন্ত না ফেসবুক কর্তৃপক্ষ ইনবক্সের ‘সিন’ অপশনটি নিয়ন্ত্রণের উদ্যোগ না নেয়। তবে ইতোমধ্যেই হোয়াটসঅ্যাপ তার ম্যাসেঞ্জার থেকে নীল টিক চিহ্ন নিয়ন্ত্রণ করার ব্যবস্থা নিয়েছে যেটি ফেসবুকের ‘সিন’ অপশনের মতই কাজ করে থাকে।
Previous Post
Next Post

0 Comments: