এবার যেন মহারণে নেমেছে মটোরোলা। ওয়ার্ল্ড মোবাইল কংগ্রেসের আগেই ৭ ফেব্রুয়ারি মটো জি সিরিজের ৪টি হ্যান্ডসেট অবমুক্ত করলো প্রতিষ্ঠানটি। ব্রাজিল ও মেক্সিকোতে মোড়ক ‍উন্মোচন করা সাশ্রয়ী এই হ্যান্ডগুলো এ মাসের মাঝামাছি আসবে ইউরোপের বাজোরে। সদ্য বাজারে ছাড়া মটো জি৭, জি৭ প্লাস, জি৭ পাওয়ার ও জি৭ প্লে হ্যান্ডসেটগুলোয় বিশেষ নজর দেওয়া হয়েছে- চিপসেট, ক্যামেরা ও চার্জিংয়ের ওপর।

জি৭ প্লাস
আলোকচিত্রীদের মটো জি৭-প্লাস: আলোকচিত্রীদের আগ্রহী করতে জি-ফোনের এখন পর্যন্ত সবচেয়ে শক্তিশালী হ্যান্ডসেট মটো জি৭। কম আলোতেও দুর্দান্ত ছবি তুলতে ফোনটির পেছনে আছে ১৬+৫ মেগাপিক্সেলের ডুয়াল ক্যামেরা। ১৬ মেগাপিক্সেলের ক্যামেরায় ১.২২ মাইক্রোমিটার পিক্সেল সেন্সর। ভিডিও ধারণে রয়েছে বৈদ্যুতিক স্থিরতা ও হাইপারল্যাপস মোড। এর বাইরেও রয়েছে গ্রুপ সেলফি মোড সুবিধার ১২ মেগাপিক্সেল সেলফি ক্যামেরা।
৬.২ ইঞ্চি পর্দার ফোনটিতে ব্যবহার হয়েছে স্ন্যাপড্রাগন ৬৩৬ চিপসেট। এতে আছে ৩ জিবি র‌্যাম ও ৬৪জিবি স্টোরেজ সুবিধা। ফোনটির অপারেটিং সিস্টেম অ্যান্ড্রয়েড ৯ পাই। এটাই মটোরোলার প্রথম ২৭ ওয়াট টার্বো পাওয়ার মোড। মাত্র ১৫ মিনিট চার্জ দিয়ে এটি চলবে ১২ ঘণ্টা। ফোনটির দাম ৩০০ ইউরো।
জি৭
অলরাউন্ডার মটো জি৭: হার্ডওয়্যারে মটো প্লাসের সমান্তরাল এই ফোনটির ১২ মেগাপিক্সেলের রিয়ার ক্যামেরায় আছে ৫ মেগাপিক্সেল পুরু সেন্সর। সেলফি ক্যামেরা ৮ মেগা পিক্সেলের। ফোনটিতে ব্যবহার হয়েছে ৪ জিবি র‌্যাম ও ৬৪ জিবি স্টোরেজ। তবে এটি ১৫ মিনিটের চার্জে ব্যাকআপ দেয় ৯ ঘণ্টা। দাম ২৫০ ইউরো। আগামী মার্চ নাগাদ উত্তর আমেরিকার বাজারে পৌছানোর পর এর দাম হবে ৩০০ ডলার।
জি৭ পাওয়ার
জি৭ পাওয়ার: জি৭ প্লাস ও ভ্যানিলার ব্যাকআপ যাদের মন জয় করতে পারবে না, তাদের জন্য জি৭ পাওয়ারে রয়েছে ৫০০০ এমএএইচ ব্যটারি। এক চার্জে চলবে ৬০ ঘণ্টা বা আড়াই দিন। দাম ২১০ ইউরো।
জি৭ পাওয়ার প্লে
জি৭ পাওয়ার প্লে: জি৭ সিরিজে সবচেয়ে কম দাম এই জি৭ প্লে ফোনের। দাম ১৫০ ডলার। এর পর্দার আকার ৫.৭ ইঞ্চি। র‌্যাম ২ জিবি এবং ধারণক্ষমতা ৩২ জিবি। ফোনটিতে আছে ১৩ মেগাপিক্সেল রিয়ার ও ৮ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা। তবে ব্যাটারির টার্বো পাওয়ার মাত্র ৫ ওয়াট।
 সূত্র: জিএসএম এরিনা