টাকা আয় হবে ফেছবুক থেকে। অনেক প্রতিক্ষার পরে এবার বাংলাদেশে চালু হয়েছে ফেছবুক ভিডিও মনিটাইজেসন। যেমন ভাবে আমরা ইউটিউব এ ভিডিও আপলোড করে আয় করতে পারি। এখন থেকে ঠিক তেমন ভাবে ফেছবুক এর মাধ্যমে আয় করা সম্ভব হবে। ফেছবুক পেজে মানসম্মত ভিডিও আপলোড এর মাধ্যমে আপনিও পারবেন অর্থ উপার্জন করতে। গত বুধবার ফেছবুক আনুষ্ঠানিক ভাবে বাংলাদেশ কে এই সুবিধা ভোগের জন্য স্বীকৃতি দেই। বর্তমানে যারা ইউটিউব এর মাধ্যমে নিজেদের ক্যারিয়ার গড়তে সক্ষম হয়েছে ঠিক তেমন ভাবে আপনিও ফেছবুকের মাধ্যমে ক্যারিয়ার গড়তে পারবেন।
ফেছবুকের মাধ্যমে এই আয় করতে হলে আপনার থাকতে হবে একটি মানসম্মত পেজ। যেখানে নিয়মিত ভিডিও আপলোড এর মাধ্যমে আপনি আয় করতে পারবেন। ইউটিউব এর মত ফেছবুকের ভিডিও তে এখন থেকে বিজ্ঞাপন দেখা যাবে। জার জন্য ভিডিও আপলোডকারী অর্থ উপার্জন করতে পারবে। কিন্তু ব্যাপার টা জতটা সহজ মনে হচ্ছতে ততটা সহজ না। সকল বেক্তি এই সুবিধা ভোগ করতে পারবে না । ইউটিউব এর মত ফেছবুকেও আপনাকে কিছু নিয়ম অনুসরন করে আপানার ভিডিও মনিটাইজেসন পাবেন। শুধু মাত্র যে সকল ভিডিও গুলো ফেছবুক অ্যাডব্রেক এর জন্য উপযুক্ত মনে করবে সেই সকল ভিডিওতে বিজ্ঞাপন দেখা যাবে এবং ভিডিও আপলোডকারী টাকা পাবে।

ভিডিও মনিটাইজেসন এর জন্য যা যা প্রয়োজন।

  •  একটি মানসম্মত ফেছবুক পেজ
  • ১০ হাজার ফেছবুক ফলোয়ার।
  • পেজের সব ভিডিও মিলিয়ে ৩০ হাজার ভিউ
এই সকল বিষয় গুলো মানলেই আপনার পেজটি মনিটাইজেসন পাবে এবং আপনি ফেছবুকের মাধ্যমে আয় করতে পারবেন। বাংলা সহ আরবি, ইংরেজি, ফ্রেন্স, জার্মান, মালয়, পর্তুগিজ, স্প্যানিশ, তাগালগ ও থাই। ফেসবুক জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, বাংলাদেশসহ বিশ্বের ৩২টি দেশ প্রাথমিকভাবে এ সুবিধার আওতায় এসেছে। চলতি বছরের শেষ নাগাদ আরও কয়েকটি দেশে এ সুবিধা চালু হবে।
লাখো তরুণ ইউটিউবার ভিডিও তৈরি করেই আয় করছেন হাজার হাজার ডলার। ফেসবুক ভিডিও মোনেটাইজেশন চালু করায় এসব নির্মাতার জন্য নতুন সম্ভাবনা তৈরি হয়েছে। দেশে ইউটিউবের চেয়ে ফেসবুকের ব্যবহারকারী বেশি হওয়ায় আমাদের সৃজনশীল নির্মাতারা এখন আর্থিকভাবে বেশি লাভবান হবেন।
...