Thursday, October 25, 2018

একটা সফটওয়্যারই কম্পিউটারের আলো থেকে আপনার চোখকে রক্ষা করবে


 এটা যারা জানেন না, শুধুমাত্র তাদের জন্য ]
এখনকার সময়ে কম্পিউটার আর ইন্টারনেট শব্দ দুইটা আমাদের প্রাত্যাহিক জীবনের সাথে অঙ্গাঙ্গী ভাবে জড়িত। এই দুইটা ছাড়া মনে হয় আমাদের জীবন চলেই না। আর ফেসবুকের কল্যাণে তো কম্পিউটারের সামনে প্রতিদিন দুই ঘন্টা না বসলেই নয়, এমন লোক খুব কমই পাওয়া যাবে। তাছাড়া কম্পিউটারে বসে দৈনন্দিন পত্রিকা পড়ার কথা আর নাই বা বললাম। এমন অনেক সময় কম্পিউটারের দিকে তাকিয়ে থাকতে থাকতে এর আলোতে আমাদের চোখে প্রবলেম শুরু হয়। আজকে আমি আপনাদের এমন একটি সফটওয়্যার এর কথা বলবো যেটা আপনার কম্পিউটারের মনিটরের আলো নিয়ন্ত্রণ করে আপনার চোখকে সুরক্ষিত রাখবে।


এই সফটওয়্যারটির নাম F.lux । এটা স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপনার মনিটরের আলো বাড়িয়ে-কমিয়ে আপনার মনিটরের আলোকে আপনার চোখের জন্য সংবেদনশীল রাখবে।

ডাউনলোডঃ
এটা উইন্ডোজ এর সকল ভার্সনেই কাজ করবে। ডাউনলোড করুন এখান থেকে ।
কার্যপ্রণালীঃ
১. সফটওয়্যারটা ডাউনলোড করে ইন্সটল করে নেন।
২. সফটওয়্যারটা ওপেন করলে আপনি সব অপশন দেখতে পাবেন।
৩. এটা যখন ওপেন করবেন তখন এটা আপনার টাইম-জোন স্বয়ংক্রিয়ভাবে সিলেক্ট করে নিবে এবং আপনার মনিটরের আলোকে হ্যালোজেন, ফ্লুরোসেন্ট অথবা ডে-লাইট এ পরিবর্তন করবে।

৪. আপনি Change Setting অপশন ব্যাবহার করে আপনার নিজের মত করে সেটিংস করতে পারবেন।
৫. সেটিংস অপশনে গেলে আপনি আপনার দিনের অথবা রাতের আলোকে নিজের পছন্দ মতো বাড়িয়ে-কমিয়ে নিতে পারবেন।
৬. আপনি আপনার সঠিক Latitude দিয়ে আপনার লোকেশন ঠিক করে দিতে পারবেন।
৭. কালার সেনসিটিভ কাজ যেমন ওয়েব-ডিজাইনিং, ফটো-এডিটিং, অ্যানিমেশন তৈরি, গ্রাফিক্স-ডিজাইনিং এর সময় এটাকে ডিজেবল বাটন দ্বারা বন্ধ করে রাখতে পারবেন।

কিভাবে বুঝবেন এটা আপনার কম্পিউটারে কাজ করছে কিনাঃ
এটা আপনি খুব সহজেই নির্ণয় করতে পারবেন। শুধু আপনি এই সফটওয়্যারটাকে কিছু সময়ের জন্য ডিজেবল করে রাখুন। এবার আপনার মনিটরের স্ক্রীনের আলোর পার্থক্য দেখেই বুঝতে পারবেন F.lux কিভাবে আপনার মনিটরের আলোকে নিয়ন্ত্রণ করছিল।
এটা প্রথম প্রকাশিত হয়েছিল এখানে।
এটা প্রথম ইংলিশে প্রকাশ করা হয়েছিল এখানে।
আমি এই সফটওয়্যারটি অনেক দিন ধরে ব্যাবহার করছি। আমি এটা ব্যবহার করে অনেক উপকার পেয়েছি। তাই, আশাকরি আপনাদেরও ভালো লাগবে। যদি কোন সমস্যা হয়, তাহলে কমেন্ট করতে ভুলবেন নাহ কিন্তু।
Previous Post
Next Post

0 Comments: